বিএনপির ৮০৮ জনের নামে মামলা, ২৪ ঘণ্টায় গ্রেপ্তার ১০৮

বিএনপির ৮০৮ জনের নামে মামলা, ২৪ ঘণ্টায় গ্রেপ্তার ১০৮

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ফাইল ছবি

পুলিশের ওপর হামলা, ক্ষমতাসীন দলের কর্মসূচিতে ককটেল নিক্ষেপ, সংঘর্ষ ও নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগ এনে বিস্ফোরক আইনে আরও পাঁচটি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় বিএনপির ৮০৮ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহী ও ১০ ডিসেম্বর রাজধানীর গণসমাবেশ ঘিরে সারাদেশে ‘কাল্পনিক ঘটনায়’ মামলা ও ধরপাকড় চালাচ্ছে পুলিশ। বেশিরভাগ মামলার এজাহারের বর্ণনার সঙ্গে ঘটনার কোনো মিল নেই।

সিরাজগঞ্জ, রায়গঞ্জ ও তাড়াশ প্রতিনিধি জানান, সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগে বিএনপির ১৭০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাতে মামলা করেন পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য জুয়েল হোসেন। পরে দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

রায়গঞ্জ থানার ওসি আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ অফিসে হামলার উদ্দেশ্যে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। পরে চারটি অবিস্ফোরিত ককটেল জব্দ করে পুলিশ। তবে উপজেলা বিএনপি সভাপতি শামছুল ইসলাম বলেন, ‘মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে হয়রানির জন্য মামলা দেওয়া হয়েছে।’

এদিকে হামলার প্রতিবাদে গতকাল বুধবার সকালে ধানগড়া দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ ছাড়া তাড়াশে মঙ্গলবার রাতে ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগ এনে বিএনপির ১২০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেন তালম ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক মজনু। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সোহরাব হোসেনসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু বলেন, ‘রাজশাহীর গণসমাবেশ ঘিরে সদর, কামারখন্দ, শাহজাদপুর, রায়গঞ্জ, সলঙ্গা ও কাজীপুরে এখন পর্যন্ত ছয় মামলায় বিএনপির ১ হাজার ৮৩ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে।’

রাজশাহী ব্যুরো ও বাঘা প্রতিনিধি জানান, গতকাল নগরীর মালোপাড়ায় মহানগর বিএনপি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিভাগীয় সমাবেশের প্রধান সমন্বয়কারী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু অভিযোগ করেন, রাজশাহীর গণসমাবেশ ঘিরে মঙ্গলবার রাতেই ৬৪ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সমাবেশ ঠেকাতে পুলিশ গায়েবি মামলা ও বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক রাসিকের সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, বাঘায় নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে ১৯ নভেম্বর বিএনপির ১৫০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে দায়ের করা এক মামলায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁরা হলেন- উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোখলেচুর রহমান মুকুল, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শফিকুল ইসলাম শফি ও পাকুড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপি নেতা ফিরোজ হোসেন।

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, উপজেলায় নাশকতা পরিকল্পনার অভিযোগে দায়ের মামলায় বিএনপির দুই নেতাকে মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁরা হলেন মাসুদুর রহমান স্বপন ও মো. রেজাউল করিম। এজাহারে বলা হয়, মঙ্গলবার রাতে বিএনপি নেতাকর্মীরা গোলড়ার কামতা সড়কে মশাল মিছিল করে। এ সময় সরকারবিরোধী স্লোগান ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায় তারা। পরে সাটুরিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক ৩২৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সরকার বলেন, ‘মঙ্গলবার রাতে আমাদের কোনো মিছিল ছিল না। কামতা সড়কেও কেউ মশাল মিছিল দেখেননি।’ তবে সাটুরিয়া থানার ওসি সুকুমার বিশ্বাস বলেন, স্থানীয়রা খবর দিলে তাঁরা ঘটনাস্থল থেকে চারটি ককটেল জব্দ করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, জেলার শিবগঞ্জ ও গোমস্তাপুর থানায় পৃথক মামলায় মঙ্গলবার রাতে বিএনপির ২৭ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরে গোমস্তাপুরের ১৪ ও শিবগঞ্জের ১৩ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি জানান, মিছিলে সরকারবিরোধী স্লোগান ও স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে বিএনপির ৪০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। পরে রামদা, হকিস্টিকসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2017 jujugantor.com
Theme Customized BY SpacialNews.Com